গুগলকে পাঁচ হাজার কোটি টাকা জরিমানা





শেয়ার

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি: প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে সংবাদ প্রকাশকারী সংস্থার কপিরাইট নিয়ে বিশ্বজুড়ে চলছে বিরোধ। এই বিরোধের মধ্যেই জরিমানা গুনতে হল সার্চ ইঞ্জিন গুগলকে।

 

সংবাদ প্রকাশক ও সংবাদ সংস্থার কনটেন্ট ব্যবহারের জন্য তাদের অর্থ দেওয়ার বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছাতে ব্যর্থ হওয়ায় গুগলকে ৫০ কোটি ইউরো বা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় পাঁচ হাজার কোটি টাকা জরিমানা করেছে ফ্রান্সের কম্পিটিশন অথরিটি।

শুধু তাই নয়, কম্পিটিশন অথরিটির নতুন আদেশ অনুযায়ী, সংবাদ ব্যবহারের জন্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে কীভাবে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে, সেই বিষয়ে আগামী দুই মাসের মধ্যে গুগলকে নতুন প্রস্তাব নিয়ে আসতে বলা হয়েছে। এতে ব্যর্থ হলে গুগলকে প্রতিদিন অতিরিক্ত ৯ লাখ ইউরো জরিমানা গুনতে হবে বলেও জানানো হয়েছে।   বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৯ সালে ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রথম দেশ হিসেবে ডিজিটাল কপিরাইট নির্দেশনাকে আইনে পরিণত করে ফ্রান্স। আইনে ‘নেইবরিং রাইটস’ রাখা হয়েছে, যার আওতায় গুগলকে সংবাদ প্রকাশক ও সংবাদ সংস্থার কনটেন্ট ব্যবহারের জন্য অর্থ দিতে হবে।   এরপরই কম্পিটিশন অথরিটি ওই আইনের আলোকে গত বছর সার্চ রেজাল্টে আর্টিকেলের সারসংক্ষেপ দেখানো নিয়ে সংবাদমাধ্যমগুলোর সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছাতে গুগলকে নির্দেশ দিয়েছিল। সেই নির্দেশনা পালনে ব্যর্থ হওয়ায় ওই কর্তৃপক্ষ গুগলকে এই জরিমানা করল।   তবে, ফ্রান্সের ওই আইন করার পর গুগল ঘোষণা দিয়েছিল যে, প্রকাশকরা তাদের কনটেন্ট বিনামূল্যে দেখাতে দিতে রাজি না হলে ফ্রান্সে সার্চ ও নিউজে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সংবাদ প্রকাশকদের কনটেন্ট দেখাবে না তারা। গুগলের এই ঘোষণাকে ক্ষমতার অপব্যবহার হিসেবে আখ্যায়িত করে সংবাদ সংস্থাগুলো।

 

এরপর সংবাদ প্রকাশকদের প্রতিনিধিত্বকারী দুটি সংস্থা ও এজেন্সি ফ্রান্স প্রেস (এএফপি) ফ্রান্সের কম্পিটিশন অথরিটির কাছে অভিযোগ করে। তারই ধারাবাহিকতায় এখন গুগলকে জরিমানা করা হয়েছে।   এ বিষয়ে গুগল কর্তৃপক্ষ মর্মাহত হয়েছে বলে বিবিসিকে জানিয়েছে। বলেছে, ‘পুরো প্রক্রিয়ায় আমরা অত্যন্ত বিশ্বস্ততার সঙ্গে এগোচ্ছিলাম। বার্তা সংস্থা এএফপির সঙ্গে আমাদের চুক্তি প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে ছিল। কিন্তু হঠাৎ এই সিদ্ধান্তে আমরা মর্মাহত।’ 

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি


শেয়ার