কমরেড নাসির উদ্দিনের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকী আগামীকাল





শেয়ার

বোয়ালখালীতে মেহনতী মানুষের মুক্তি সংগ্রামের আজীবন সংগ্রামী কমরডে নাসির উদ্দিনের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকী আগামীকাল । এ উপলক্ষে কমরেড নাসির উদ্দিন ফাউন্ডেশন ব্যাপক কর্মসূচী গ্রহন করেছে ।

 

সোমবার ( ১৫ ফেব্রুয়ারী) দাশের দীঘির পাড়ে আহলা চাইল্ড  কেয়ার একাডমেীতে চিত্রাংকন, রচনা ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে । পরিবারের উদ্যোগে খতমে  কোরান,মিলাদ ও কবর  জেয়ারত । বিকালে পুষ্পমাল্য র্অপন ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হবে ।

 

কমরেড নাছির উদ্দিন ১৯৬০ সালের ১  মে  বোয়ালখালীর আহলা কড়লডেঙ্গা ইউনিয়নের  শেখ  চৌধুরী পাড়ার সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়  থেকে রসায়নে স্নাতক্তোর ডিগ্রী লাভ করেন তিনি ।  গোমদন্ডী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা দিয়ে তিনি কর্মজীবন শুরু করেন ।

 

তিনি বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কমিটির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ  ক্ষেতমজুর সমিতি চট্টগ্রাম দক্ষিণ  জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি  বোয়ালখালী উপজেলা কমিটির সহ সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব নিষ্টার সাথে পালন করেন । নিজ এলাকায় সিরাজ আনোয়ারাবহুমুখী উচচ বিদ্যালয়, করিম গুলশান আরা দাতব্য চিকিৎসায় ও কারিগরি স্কুল প্রতিষ্ঠায় প্রধান উদ্যোক্তা, আহলা সমাজ কল্যান সংস্থার ভূমিদাতা ও  সোপান  খেলাঘর আসরের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন তিনি ।

 

বোয়ালখালীসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামে ব্যাপক  ক্ষেতমজুর আন্দোলন গড়ে  তোলেন তিনি। তাঁর  নেতৃত্বে খাসজমির দাবীতে তৎকালীন  বোয়ালখালী থানা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়  ঘেরাও করে আন্দোলনের সফলতা লাভ করে ।

 

১৯৯০ সালে ঢাকায় স্বৈরচার বিরোধী আন্দোলনে পুলিশের বেদম প্রহারে বুকে গুরুতর জখমে অসুস্থ হয়ে পড়েন । ১৯৯১ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কমিউনিস্ট পার্টির প্রার্থী কমরেড শাহ আলমের নির্বাচনী প্রচারনা  শেষে ১৪  ফেব্রুয়ারী গভীর রাতে বাড়ীতে ফিরে অসুস্থ হয়ে পড়েন । ১৫  ফেব্রুয়ারী প্রথম প্রহরে তিনি পরলোক গমন করেন ।

 

আমৃত্যু এই বিপ্লবীকে এতদঞ্চালের নিপিড়ীত  মেহনতী জনগন প্রতিবছর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে ।  প্রেস বিজ্ঞপ্তি

 

চট্টগ্রাম


শেয়ার