দুই কন্যা বদলে দিয়েছে সাকিবকে





শেয়ার

সাকিব আল হাসান বরাবরই আলোচনার কেন্দ্রে ছিলেন। ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্স কিংবা প্রবল প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে একাই লড়ে যাওয়া যেমন এতে প্রভাব রেখেছে, বিভিন্ন সময় নানা বিতর্কও এতে ভূমিকা রেখেছে।

২০১৯ সালটাই তো সাকিবের ক্যারিয়ারের সেরা উদাহরণ। বছরের প্রথমভাগে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে সবার নয়নের মণি হয়েছেন, বিশ্বকাপে অবিশ্বাস্য পারফর্ম করেছেন। কিছুদিন পর খেলোয়াড়দের আন্দোলনেও নেতৃত্ব দিয়েছেন, আবার আন্দোলন থামতে না থামতেই আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী আইনের নিয়ম সঠিকভাবে না মানায় এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন।

ইএসপিএন ক্রিকইনফোর নতুন ক্রিকেটবাজি সিরিজে এসে দীপ দাশগুপ্তর সঙ্গে নিজের ক্যারিয়ারের বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা বলেছেন। নিষিদ্ধ হওয়ার কারণে নিজের ভুলের কথা বলেছেন, বলেছেন বাংলাদেশ দলের সংস্কৃতির কথা। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে মাঝে মাঝেই বিতর্কিত ঘটনার জন্ম দেওয়া নিয়েও মুখ খুলেছেন। আর বলেছেন দুই কন্যার জন্ম অনেকটাই বদলে দিয়েছে তাঁকে।

 

দুই কন্যা ক্রিকেটার সাকিবকে আরও পরিণত করেছে মানুষ হিসেবে। ছবি: ইনস্টাগ্রামদুই কন্যা ক্রিকেটার সাকিবকে আরও পরিণত করেছে মানুষ হিসেবে। ছবি: ইনস্টাগ্রামসাকিব আল হাসান বরাবরই আলোচনার কেন্দ্রে ছিলেন। ম্যাচ জেতানো পারফরম্যান্স কিংবা প্রবল প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে একাই লড়ে যাওয়া যেমন এতে প্রভাব রেখেছে, বিভিন্ন সময় নানা বিতর্কও এতে ভূমিকা রেখেছে।

২০১৯ সালটাই তো সাকিবের ক্যারিয়ারের সেরা উদাহরণ। বছরের প্রথমভাগে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে সবার নয়নের মণি হয়েছেন, বিশ্বকাপে অবিশ্বাস্য পারফর্ম করেছেন। কিছুদিন পর খেলোয়াড়দের আন্দোলনেও নেতৃত্ব দিয়েছেন, আবার আন্দোলন থামতে না থামতেই আইসিসির দুর্নীতি বিরোধী আইনের নিয়ম সঠিকভাবে না মানায় এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন।ইএসপিএন ক্রিকইনফোর নতুন ক্রিকেটবাজি সিরিজে এসে দীপ দাশগুপ্তর সঙ্গে নিজের ক্যারিয়ারের বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা বলেছেন। নিষিদ্ধ হওয়ার কারণে নিজের ভুলের কথা বলেছেন, বলেছেন বাংলাদেশ দলের সংস্কৃতির কথা। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে মাঝে মাঝেই বিতর্কিত ঘটনার জন্ম দেওয়া নিয়েও মুখ খুলেছেন। আর বলেছেন দুই কন্যার জন্ম অনেকটাই বদলে দিয়েছে তাঁকে।

২০০৯ সালেই ২১ বছরের সাকিবের কাঁধে জাতীয় দলের ভার চলে এসেছিল। মাশরাফি বিন মুর্তজার চোটে পাওয়া সে দায়িত্ব সামলেই বিদেশের মাটিতে প্রথম সিরিজ জেতায় সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ২০১১ বিশ্বকাপেও নেতৃত্ব দিয়েছেন সাকিব। কিন্তু এ সময়টায় বিতর্কও তাঁর পিছু ছাড়েনি। দীপ দাশগুপ্তর সঙ্গে কথোপকথনে সাকিব বলেছে, সে অভিজ্ঞতা তাঁকে বদলে দিয়েছে, 'আমার মনে হয় দুটোই হয়েছে (বিতর্ক তাঁর পিছু নিয়েছে এবং তিনিও বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন)। ক্যারিয়ারের এত শুরুতেই আমি সে দায়িত্ব (অধিনায়কত্ব) পেয়েছিলাম, ভুল করাটাই স্বাভাবিক ছিল। যখন ২১ বছর তখন অধিনায়ক হয়েছি। আমি অনেক ভুল করেছি। মানুষ আমার ব্যাপারে ভাবতে গেলে অনেক কিছুই মাথায় আসে। আমি এখন বুঝতে পারি, কিছু ক্ষেত্রে আমার ভুল ছিল। আবার কিছু ক্ষেত্রে আমাকে ভুল বোঝা হয়েছে। কিন্তু আমি সেটা এখন পুরোপুরি বুঝতে পারি। উপমহাদেশে এটা খেলার অংশ।'নিষিদ্ধ হওয়ার আগে আবারও বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব পেয়েছিলেন সাকিব। তাঁর ধারণা প্রথমবারের মতো ভুল এবার আর করতেন না। নিজের মাঝে আগের তুলনায় অনেক বেশি নিয়ন্ত্রণে দেখতে পাচ্ছেন সাকিব। আর এর পেছনে নিজের পিতৃত্বের প্রভাব দেখেন সাবেক বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার, 'আমি অবশ্যই চাইব নিজের ভুলের সংখ্যা কমিয়ে আনতে। আমি এর মাঝে বিয়ে করেছি এখন দুটো বাচ্চা আছে। এখন আমি খেলা ও জীবনটা আরও ভালো বুঝি। বিশ বছরের আমি যেমন ছিলাম, তার তুলনায় অনেক শান্ত বানিয়েছে এ বিষয়গুলো। আমি অনেক বদলে গেছি। আমাকে এখন আর অত ভুল করতে দেখে না মানুষ। আমার দুই কন্যা আমার জীবনটা একদম বদলে দিয়েছে।'

খেলাধুলা


শেয়ার